ইনফিনিক্স হট এলিভেন প্লে ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন – Infinix Hot 11 Play

টেক ট্রেন্ড সেটার ব্রান্ড ইনফিনিক্স তাদের হোনার ব্যান্ডের হট সিরিজের নতুন স্মার্টফোন ‘ইনফিনিক্স হট এলিভেন প্লে’ বাংলাদেশের বাজারে নিয়ে এসেছে। ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪/১২৮ জিবি রোমের ফোনটি বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাবে।

প্রসেসর

সকল ফিচারের সুন্দরভাবে চালাতে একটি শক্তিশালী প্রসেসর অপরিহার্য। দারুণ পারফরম্যান্স নিশ্চিত করতে স্মার্টফোনটিতে চিপসেট হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও প্রসেসর, যা ব্যবহারকারীর চাহিদা অনুযায়ী কর্মক্ষমতা প্রদান করবে।

অপারেটিং সিস্টেম

ইনফিনিক্স হট ১১ প্লে স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ১১।

ডিসপ্লে

ইনফিনিক্স হট এলিভেন প্লে ফোনে আছে ৬.৮২ ইঞ্চির আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে রয়েছে। যার স্ক্রীন বডি রেশিও ৮২.৪ শতাংশ ও ২৬৩ পি পি আই ডেনসিটি এবং ডিসপ্লে রেজুলেশন ৭২০ X ১৬৪০ পিক্সেলস।

ক্যামেরা

ফোনটির রিয়ারে ডুয়াল ক্যামেরা রয়েছে। এতে একটি ১৩ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা ও একটি সেকেন্ডারি আনস্পেসিফাইড ক্যামেরা রয়েছে। এতে কোয়াড-এলইডি ফ্ল্যাশ, প্যানোরামা, এইচডিআরসহ বেশ কিছু ফিচার রয়েছে।

ফোনে ৮ মেগাপিক্সেলের একটি ওয়াইড সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। সেলফি ক্যামেরাটিতে এলইডি ফ্ল্যাশসহ বেশ কিছু ফিচার রয়েছে। এছাড়া স্মার্টফোনে সর্বোচ্চ ১০৮০পি রেজুলেশনের ভিডিও ধারণ ক্ষমতা রয়েছে।

স্টোরেজ

ফোনটিতে ৪ গিগাবাইট র‍্যাম অপ্টিমাইজেশন দিবে চমৎকার স্মুথ ও দীর্ঘ বিনোদন বা গেমিং সেশন এবং ৬৪/১২৮ গিগাবাইটের স্টোরেজে জায়গা ফুরিয়ে যাওয়া নিয়েও ভাবতে হবে না।

ব্যাটারি

‘ইনফিনিক্স হট এলিভেন প্লে’ ফোনে লি-পো ৬০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি রয়েছে, যাতে ১০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং সুবিধা রয়েছে।

অন্যান্য

ইনফিনিক্স হট এলিভেন প্লে ফোনের আকার ৬.৭৬ x ৩.০৭ x ০.৩৫ ইঞ্চি। স্মার্টফোনটি গ্রীন, গোল্ড, ব্লু ও ব্ল্যাক রঙে পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া ফিঙ্গারপ্রিন্ট (রিয়ার মাউন্ট), অ্যাক্সিলোমিটার, প্রক্সিমিটি, কম্পাস সুবিধা রয়েছে।

ইনফিনিক্স হট এলিভেন প্লে (Infinix Hot 11 Play) ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন জেনে নিনঃ

ব্যান্ড ইনফিনিক্স
সিরিজ হট
মডেল হট এলিভেন প্লে
ডিসপ্লের ধরণ আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে
ডিসপ্লের সাইজ ৬.৮২ ইঞ্চি
পিছনের ক্যামেরা দুইটি ক্যামেরা; একটি ১৩ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা+একটি আনস্পেসিফাইড ক্যামেরা
সামনের ক্যামেরা একটি ক্যামেরা; একটি ৮ মেগাপিক্সেলের একটি ওয়াইড ক্যামেরা
প্রসেসর মিডিয়াটেক এমটি ৬৭৬৫জি হেলিও জি৩৫ (১২ এনএম) চিপসেট, অক্টা-কোর (৪x২.৩ গিগাহার্টজ কটেক্স এ৫৩ এবং ৪x১.৮ গিগাহার্টজ কটেক্স এ৫৩ সিপিইউ, পাওয়ারভিআর জিই৮৩২০ জিপিইউ
র‌্যাম ৪ গিগাবাইট
ইন্টারনাল স্টোরেজ (রোম) ৬৪/১২৮ গিগাবাইট
ব্যাটারি লি-পো ৬ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার
কালার গ্রীন, গোল্ড, ব্লু ও ব্ল্যাক
আকার ৬.৭৬ x ৩.০৭ x ০.৩৫ ইঞ্চি
ভেরিয়েন্ট দুই; ৪ জিবি + ৬৪ জিবি, ৪ জিবি + ১২৮ জিবি
ওজন – গ্রাম
মূল্য ১১ হাজার ৪৯০ টাকা (৪ জিবি + ৬৪ জিবি)

১২ হাজার ৪৯০ টাকা (৪ জিবি + ১২৮ জিবি)

আরও পড়ুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *