যমুনা ফিউচার পার্ক – দর্শনীয় স্থান

যমুনা ফিউচার পার্ক - দর্শনীয় স্থান

আমাদের আজকের প্রতিবেদনটি যমুনা ফিউচার পার্ক কে ঘিরে। যমুনা ফিউচার পার্ক কোথায় অবস্থিত, ইতিহাস, কাঠামো, কেন যাবেন, কিভাবে যাবেন, কোথায় থাকবেন এ নিয়ে আমাদের প্রতিবেদন টি সাজানো হয়েছে। আশা করি, প্রতিবেদনটি পড়ে আপনারা উপকৃত হবেন।

যমুনা ফিউচার পার্ক ক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ একটি শপিং মল। প্রায় ৪,১০০,০০ বর্গফুট আয়তনের এই শপিং মলটি যমুনা বিল্ডার্স লিঃ ২০০২ সালে এই স্থাপনাটি তৈরির কাজ শুরু করে এবং ২০১৩ সালের ৬ সেপ্টেম্বর তা সর্ব-সাধারণের জন্য খুলে দেয়। এখানে সর্বস্তরের মানুষ কেনাকাটা ও ঘুরতে পারেন। এছাড়া কেনাকাটার পাশাপাশি চিত্তবিনোদনের ব্যবস্থাও রয়েছে। ফলে, প্রচুর দর্শনার্থীর সমাগম ঘটে।

অবস্থান

ঢাকা শহরের অভিজাত জায়গা কুড়িল, বারিধারা, প্রগতি সরণি ও গুলশান এর মত জায়গার কাছাকাছি অবস্থিত। এছাড়া এটি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও কুড়িল ফ্লাইওভার এর খুব নিকটে অবস্থিত।

  • জেলাঃ ঢাকা
  • উপজেলাঃ বাড্ডা থানা

কেন যাবেন?

ভ্রমন পিপাসু মানুষ দের কে যদি এই কথা জিজ্ঞাসা করা হয়, তবে তারা এই কথা অহেতু হাসির ছলে উড়িয়ে দিবে । কারন, ভ্রমন পিপাসু মানুষদের কাছে এই কথা মূল্যহীন। তবুও বলি,

যমুনা ফিউচার পার্কে আছে দেশি বিদেশি বিভিন্ন ব্রান্ডের বিক্রয় কেন্দ্র, ফুডকোর্ট, কেএফসি, পিজা হাট, টাকিয়া, Uniqlo, লোটো, রেষ্টুরেন্ট, ব্লকবাস্টার সিনেমাস, প্লেয়ারস জোন এবং সুপরিসর কার পার্কিং। কেনাকাটার পাশাপাশি চিত্তবিনোদনের জন্য স্কাইড্রপ, রোলার কোস্টার, পাইরেট শিপ, ম্যাজিক উইন্ডমিল, ফ্লাইং ডিসকো ও টাওয়ার চ্যালেঞ্জারের মতো শিহরণ জাগানিয়া ৬টি রোমাঞ্চকর আউটডোর রাইডের ব্যবস্থা রয়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ এই শপিং মলে প্রচুর দর্শনার্থী আসেন মূলত এর সৌন্দর্য্য দেখার পাশাপাশি কেনাকাটা করতে।

সব মিলিয়ে দেখে ভালো লাগবে।

ব্যয়

যমুনা যমুনা ফিউচার পার্কে প্রবেশ করতে কোন প্রকার টিকিট ক্রয় করতে হয় না।

পরিদর্শনের সময়

যমুনা ফিউচার পার্ক বুধবার বন্ধ থাকে। এছাড়া সপ্তাহের বাকি ৬ দিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

বার সময়
বৃহস্পতি-মঙ্গল সকাল ১০ টা – রাত ৯ টা
বুধবার বন্ধ

যোগাযোগ

ঠিকানা: ক-২৪৪, কুড়িল, প্রগতি সরণি, বারিধারা
ফোন: ৮৪১৬০৫১-২
মোবাইল: ০১৯৩৭-৪০০২০৫ থেকে ২২ পর্যন্ত
ওয়েবসাইট: www.jamunafuturepark.com

কীভাবে যাবেন ?

ঢাকার যে কোন স্থান থেকে বাস, সিএনজি, ট্যাক্সি ইত্যাদিতে মাধ্যমে যমুনা ফিউচার পার্কে আসা যাবে।

কোথায় খাবেন ?

যমুনা ফিউচার পার্কে অনেক ভালো মানের রেস্তোরা আছে। এখানে সব ধরনের খাবারই পাওয়া যায়। আপনি সেগুলি থেকে আপনার পছন্দের খাবার খেতে পারেন।

কোথায় থাকবেন

ঢাকার শহরের আনাচে-কানাচে অগণিত উন্নতমানের আবাসিক হোটেল, মোটেল রয়েছে। আপনি সেগুলিতে অনায়াসে থাকতে পারেন।

ম্যাপ

যমুনা ফিউচার পার্কের গুগল ম্যাপ যুক্ত করা হয়েছে। যা দেখে আপনি সহজেই আপনার পথ খুজে পাবেন।

আরও পড়ুন