চক্র মুভি রিভিউ – Chakra (2021)

চক্র মুভি রিভিউ - Chakra (2021)

চক্র মুভির রিভিউ পড়ার আগে। চক্র তামিল মুভির অভিনেতা, অভিনত্রী, নির্মাতাসহ সকল কলাকুশলী ও মুক্তি সম্পর্কিত সকল তথ্য নিচের প্রদত্ত লিংক থেকে জেনে আসুন।

চক্র মুভি

চক্র সিনেমা সম্পর্কিত তথ্যাদি জানা থাকলে আমাদের রিভিও পড়ে মজা পাবেন এবং আপনি আপনার মতামত আমাদের সাথে শেয়ার করতে পারবেন। আর হ্যা আপনি চাইলে আপনার প্রিয় মুভি বা তারকার সম্পর্কে আপনার মতামত বা রিভিউ লিখে আমাদের পাঠাতে পারেন। তো কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক……

চক্র মুভি রিভিউঃ ভালো লাগার মতো একটা মুভি

  • পার্সোনাল রেটিংঃ ৮/১০
  • রিভিউকারীঃ আরিয়ান

প্রিয় প্লাটফর্ম একটি বাংলাদেশে নতুন আরেকটি মুভির রিভিউ নিয়ে হাজির হলাম। আর আজকেও একটু ব্যতিক্রমভাবে অর্থাৎ আমার নিজের মতো করে কয়েকটি পয়েন্ট উল্লেখপূর্বক রিভিউটি লিখতে যাচ্ছি। আশা করি সবার ভালো লাগবে।

টাইটেল

প্রথমেই বলে নেই মুভির টাইটেল সম্পর্কে। মুভির টাইটেল চক্র, আমি যতটুকু বুঝেছি তাতে নিজের বুদ্ধির চক্রে/ফাঁদে নিজে পড়ার বিষয়টি ছিলো অথবা মুভির গল্পের সাথে যুক্ত ইন্ডিয়ান মিলিটারিদের সর্বোচ্চ সম্মান পদক অশোক চক্রের বিষয় ছিলো। সুতরাং টাইটেল ঠিকঠাক বলা যায়।

কাস্টিং, রোল ও অভিনয়

এবার আশা যাক কাস্টিং, রোল ও অভিনয়ের দিকে। এই অংশে মূল চরিত্রের কিছু তারকাদের সম্পর্কে আলাদা আলাদা ভাবে জানা যাক।

বিশালঃ চন্দ্রু চরিত্রে বিশাল ছিলো। ইদানিং মনে হচ্ছে মিলিটারী ও অনলাইন বিষয় দুইটার উপর হুমড়ি খেয়ে পড়েছে। তার লাস্ট কিছু মুভিতেই এরকম কিছু দেখতে মিলছে। তবে ভালোই লাগে । আর আমার মনে হয় সাইবার সংক্রান্ত কার্যকলাপ বা অপরাধ নিয়ে তিনিই প্রথম তামিল ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করছেন এবং অনেক গুরুত্বপূর্ণ সচেতনতামূলক বিষয়াদি তুলে ধরছেন। যাই হোক তার চন্দ্রু চরিত্রটি আমার অনেক ভালো লেগেছে।

শ্রদ্ধা শ্রনাথঃ সাউথের এই গুণী অভিনেত্রী একেরপর এক ভালো ভালো প্রোডাশনের সাথে যুক্ত হচ্ছেন। তার স্ক্রিপ্ট সিলেকশন বা মুভি সিলেশন প্রশংসনীয়। তাকে ইতিপূর্বে বিক্রম ভেদা, জার্সি ও মারা মতো মুভিতে দেখতে পেয়েছি। তবে এই মুভিতে তাকে একটু অন্যভাবে দেখতে মিলেছে। তার চরিত্রের নাম ছিলো গায়েত্রি। যিনি একজন পুলিশ কর্মকর্তা। তাকে অ্যাকশন করতেও দেখেছি  মুভিটিতে। অনেক ভালো লেগেছে গায়েত্রি চরিত্র।

রেজিনা ক্যাসান্দ্রাঃ মুভির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নেগেটিভ চরিত্রের নাম লীলা। লীলা চরিত্রে অভিনয় করছেন রেজিনা ক্যাসান্দ্রা। ব্রিলিয়ান্ট ও স্ট্রং নেগেটিভ রোল ছিলো এটি, যা রেজিনা অনেক সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন।

এই চরিত্রগুলির বেশী ভূমিকা ছিলো মুভিটিতে। আর এই তিন চরিত্রও অনেক ভালো লেগেছে আমার। মনে হচ্ছিলো যে যার অবস্থানে একদম পারফেক্ট ছিলো। এছাড়া শ্রুতি দেঙ্গে, কমেডিয়ান রোবো শঙ্কর, কমেডিয়ান মনোবালাসহ আরও অনেকে ছিলো। তারা যে যার চরিত্রগুলি যথার্থভাবে ফুটিয়ে তুলেছে।

মেকিং

মেকিং এর কথা বলতে গেলে প্রথমেই আমার মনে আসে মুভির বিজিএম এর কথা, সিনেমাতে অস্থির ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক ছিলো। যা ইউভান শঙ্কর রাজা করেছেন। বরাবরের মতো এবারও ইউভান শঙ্কর রাজা অনেক সুন্দর ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক ও গান আমাদের উপহার দিয়েছেন মুভিটিতে। কথায় আছে, বি জি এম সিনেমার প্রাণ, মুভিটির বিজিএম আমার অনেক পছন্দনীয় ছিল। আর এই মুভির হারলা ফারলা গানটা আমার অনেক পছন্দের ছিলো।

মুভিটির ভিজুয়াল মেকিং এর ব্যাপারে বলতে গেলে প্রথমেই বলতে হয় এমএস আনন্দনের কথা। এর আগে তার কোন মুভি দেখছি কিনা মনে নাই, তবে এই মুভিতে তার কাজ গুলি দেখে অনেক ভালো লেগেছে। বিশেষ করে গল্প, গল্পের বিষয়ে একটু পড়েই বলি। মুভিটির ক্যামেরা ফ্রেমিং, ইডিটিং, কালার, স্ক্রিন প্লে সব কিছু খুবই ভালো লেগেছে।

প্লট

এবার সিনেমার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ নিয়ে বলি। আমার মনে হয়, সিনেমার গল্পই সিনেমার ভালো খারাপের পেছনে থাকে। একটা ভালো গল্প দিতে পারে জনপ্রিয়তা আবার একটা খারাপ গল্প নিমিষেই ডুবিয়ে দিতে পারে, যত ভালো মেকিং বা কাস্ট থাকুক না কেন। তাই গল্প নির্বাচন অনেক বেশী গুরুত্বপূর্ণ। চক্র মুভিতে গল্প অনেক স্ট্রং লেগেছে। বিশেষ করে তিনটা চরিত্রকে সেইম লেভেলে ব্যালান্স করাটা অনেক কঠিন কাজ, যা এমএস আনন্দন তার গল্পের মাধ্যমে দেখিয়ে দিয়েছেন। মুভির গল্পে ইনটেলিজেন্ট মিলিটারি চন্দ্রু, এসিপি গায়েত্রির অ্যাকশন, মাস্টারমাইন্ড রেজিনা তিনটা সমানভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন। আর আমার কাছে এটাই প্লাস পয়েন্ট মনে হইছে। গল্পে সব সময় টান টান একটা উত্তেজনা ছিলো। এক কথায় বলতে গেলে, অসাধারণ গল্প ছিলো।

ওভারঅল

সর্বোপরি বলা যায়, অনেকদিন পর অনেক ভালো মানের একটা মুভি দেখতে পেলাম। কোথাও এক মূহুর্তের জন্য বিরক্ত লাগে নাই বা বোর করার মতো এক ঘেয়ামো কিছু ছিলো না। গুরুত্বপূর্ণ তিনটি চরিত্রই অনেক ভালো লেগেছে। এছাড়া গল্পও অনেক ভালো লেগেছে, যদিও হ্যাকিং রিলেটেড কিং ইনফরমেশনে কিছু ল্যাকিংস ছিলো, সেগুলি ক্লিয়ার করলে আরও বেশী ভালো লাগতো।

আজকের মতো বিদায় নিচ্ছি আবার সময় করে অন্য কোন মুভি নিয়ে লিখবো। আপনাদের রিভিউটি ভালো খারাপ যাই লাগুক কমেন্ট করে জানাবেন।