,


স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ ব্র্যান্ডের একটি চিত্তাকর্ষক ডিভাইস। এই আর্টিকেল স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন জানতে সাহায্য করবে। এখানে স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ ফোনের ক্যামেরা, ডিসপ্লে, প্রসেসর, র‍্যাম, রোম, ব্যাটারি, অপারেটিং সিস্টেম ও বাংলাদেশের বাজার মূল্য সহ সকল বিষয়ে জানতে পারবেন।

প্রসেসর

সকল ফিচারের সুন্দরভাবে চালাতে একটি শক্তিশালী প্রসেসর অপরিহার্য। দারুণ পারফরম্যান্স নিশ্চিত করতে স্মার্টফোনটিতে
অক্টা-কোর ১.৮ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ ৫৩ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে, যা ব্যবহারকারীর চাহিদা অনুযায়ী কর্মক্ষমতা প্রদান করবে।

অপারেটিং সিস্টেম

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ১০।

ডিসপ্লে

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১-তে আছে ৬.৪ ইঞ্চির পিএলএস টিএফটি ডিসপ্লে। স্ক্রিনটির রেজোলিউশন ৭২০ x ১৫৬০ পিক্সেল এবং ২৬৮ পিপিআই পিক্সেল ঘনত্ব রয়েছে। এটিতে ৮১.৬% স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও রয়েছে।

ক্যামেরা

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ ফোনে তিনটি প্রাইমারি ক্যামেরা রয়েছে। ১৩ মেগাপিক্সেলের একটি ওয়াইড ক্যামেরা, ৫ মেগাপিক্সেলের একটি আলট্রা ওয়াইড ক্যামেরা ও ২ মেগাপিক্সেলের একটি ডেপথ ক্যামেরা রয়েছে। ফোনে ৮ মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরা থাকছে। স্মার্টফোনটির সাহায্যে ১০৮০পি রেজুলেশনের ভিডিও ধারণ করা যায়।

স্টোরেজ

ফোনটিতে ২/৩ গিগাবাইট র‍্যাম অপ্টিমাইজেশন দিবে চমৎকার স্মুথ ও দীর্ঘ বিনোদন বা গেমিং সেশন এবং ৩২/৬৪ গিগাবাইটের স্টোরেজ, যার কারণে জায়গা ফুরিয়ে যাওয়া নিয়েও ভাবতে হবে না।

ব্যাটারি

‘স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১’ এ রয়েছে লি-পো ৪০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি রয়েছে। এতে ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট রয়েছে।

অন্যান্য

স্মার্টফোনটি কালো, সাদা, নীল, লাল রঙে পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া এতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট (রিয়ার-মাউন্ট), অ্যাকসিলোমিটার, প্রক্সিমিটি রয়েছে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ স্মার্টফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন

বাংলাদেশের বাজারে স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ পাওয়া যাবে মাত্র ১৪ হাজার টাকা থেকে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ ১১ (Samsung Galaxy A11) ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন জেনে নিন

ব্যান্ড স্যামসাং
সিরিজ গ্যালাক্সি
মডেল এ ১১
ডিসপ্লের ধরণ পিএলএস টিএফটি ডিসপ্লে
ডিসপ্লের সাইজ ৬.৪-ইঞ্চি
পিছনের ক্যামেরা তিনটি প্রাইমারি ক্যামেরা: ১৩ মেগাপিক্সেলের একটি ওয়াইড ক্যামেরা + ৫  মেগাপিক্সেলের একটি আলট্রা ওয়াইড ক্যামেরা + ২ মেগাপিক্সেলের একটি ডেপথ ক্যামেরা
সামনের ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরা
প্রসেসর অক্টা-কোর ১.৮ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ ৫৩ প্রসেসর, কোয়ালকম এসএম ৪২৫০ স্ন্যাপড্রাগন ৪৫০ (১১ এনএম) চিপসেট, অ্যাড্রেনো৫০৬ জিপিইউ
র‌্যাম ২/৩ গিগাবাইট
ইন্টারনাল স্টোরেজ (রোম) ৩২/৬৪ গিগাবাইট
ব্যাটারি লি-পো ৪০০০ মিলিআম্পিয়ার
সাইজ ৬.৩৫ x ৩.০০ x ০.৩১ (ইঞ্চি) অথবা ১৬১.৪ x ৭৬.৩ x ৮ (মিমি)
ওজন ১৭৭ গ্রাম
বডি মেটাল গ্লাস (ফ্রন্ট), প্লাস্টিক (ব্যাক), প্লাস্টিক (ফ্রেম)
কালার কালো, সাদা, নীল, লাল

আরও পড়ুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: