,


ওপো রেনো ফাইভ লাইট ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন - Oppo Reno5 Lite

ওপো রেনো ফাইভ লাইট ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন – Oppo Reno5 Lite

টপ টেক ব্র্যান্ড ওপো রেনো সিরিজের নতুন স্মার্টফোন ‘ওপো রেনো ফাইভ লাইট’ বাংলাদেশের বাজারে নিয়ে এসেছে। ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি রোমের ফোনটি বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাবে।

প্রসেসর

সকল ফিচারের সুন্দরভাবে চালাতে একটি শক্তিশালী প্রসেসর অপরিহার্য। দারুণ পারফরম্যান্স নিশ্চিত করতে স্মার্টফোনটিতে চিপসেট হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও® পি™৯৫ অক্টাকোর প্রসেসর, যা ব্যবহারকারীর চাহিদা অনুযায়ী কর্মক্ষমতা প্রদান করবে।

অপারেটিং সিস্টেম

ওপো রেনো ফাইভ লাইট স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ১১, কালারওএস ১১.১।

ডিসপ্লে

ওপো রেনো ফাইভ লাইট-তে আছে ৬.৪৩ ইঞ্চির আমোলেড ডিসপ্লে। যার স্ক্রীন বডি রেশিও ৮৫.২ শতাংশ ও ৪০৯ পি পি আই ডেনসিটি।

ক্যামেরা

ফোনটিতে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা রয়েছে। এতে একটি ৪৮ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা, একটি ৮ মেগাপিক্সেলের আলট্রা ওয়াইড ক্যামেরা, একটি ২ মেগাপিক্সেলের মেক্রো ক্যামেরা ও একটি ২ মেগাপিক্সেলের ডেপথ সেন্সর ক্যামেরা রয়েছে। এতে এলইডি ফ্ল্যাশ, এইচডিআর, প্যানোরামাসহ বিভিন্ন ফিচার রয়েছে।

ফোনে ৩২ মেগাপিক্সেলের একটি ওয়াইড সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। এছাড়া স্মার্টফোনে ১০৮০পি রেজুলেশনের ভিডিও ধারণ ক্ষমতা রয়েছে।

স্টোরেজ

ফোনটিতে ৮ গিগাবাইট র‍্যাম অপ্টিমাইজেশন দিবে চমৎকার স্মুথ ও দীর্ঘ বিনোদন বা গেমিং সেশন এবং ১২৮ গিগাবাইটের স্টোরেজে জায়গা ফুরিয়ে যাওয়া নিয়েও ভাবতে হবে না।

ব্যাটারি

‘ওপো রেনো ফাইভ লাইট’ তে লিপো ৪৩১০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি রয়েছে, যাতে ৩০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে।

অন্যান্য

স্মার্টফোনটি ফ্লুয়েড ব্ল্যাক, ফ্যান্টাস্টিক পার্পেল এই দুই রঙে পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া ফিঙ্গারপ্রিন্ট (আন্ডার ডিসপ্লে-অপটিক্যাল), অ্যাক্সিলোমিটার, প্রক্সিমিটি, কম্পাস সুবিধা রয়েছে।

ওপো রেনো ফাইভ লাইট (Oppo Reno5 Lite) ফোনের দাম ও স্পেসিফিকেশন জেনে নিনঃ

ব্যান্ড ওপো
সিরিজ রেনো
মডেল ফাইভ লাইট
ডিসপ্লের ধরণ আমোলেড ডিসপ্লে
ডিসপ্লের সাইজ ৬.৪৩ ইঞ্চি
পিছনের ক্যামেরা চারটি ক্যামেরা; কটি ৪৮ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা + একটি ৮ মেগাপিক্সেলের আলট্রা ওয়াইড ক্যামেরা + একটি ২ মেগাপিক্সেলের মেক্রো ক্যামেরা + একটি ২ মেগাপিক্সেলের ডেপথ ক্যামেরা
সামনের ক্যামেরা ৩২ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা
প্রসেসর মিডিয়াটেক এমটি৬৭৭৯ভি হেলিও পি ৯৫ (১২ এনএম) চিপসেট, অক্টা-কোর (২x২.২ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ ৭৫ এবং ৬x২.০ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ ৫৫) সিপিইউ, পাওয়ারভিআর জিএম ৯৪৪৫ জিপিইউ
র‌্যাম ৮ গিগাবাইট
ইন্টারনাল স্টোরেজ (রোম) ১২৮ গিগাবাইট
ব্যাটারি লি-পো ৪ হাজার ৩১০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার
কালার ফ্লুয়েড ব্ল্যাক, ফ্যান্টাস্টিক পার্পেল
মূল্য ২৩ হাজার ৯৯০ টাকা

আরও পড়ুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: