সদর ৩ আসনের উপ নির্বাচন উপলক্ষে তুষার কান্তি মন্ডলের শোডাউন

রংপুর প্রতিনিধিঃ  রংপুর সদর ৩ আসনের উপ নির্বাচন উপলক্ষে মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামীলীগের নৌকা মার্কার মনোনয়ন প্রত্যাশী তুষার কান্তি মন্ডল নেতাকর্মী নিয়ে বিশাল শোডাউন করেছে। গতকাল সকাল ১১ টায় নগরীর শাপলা চত্বরে নেতাকর্মীরা জমায়েত হয়। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন রংপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামীলীগের নৌকা মনোনয়ন প্রত্যাশী তুষার কান্তি মন্ডল। বক্তব্যে তুষার কান্তি মন্ডল বলেন, রংপুরের উন্নয়নে নৌকার বিকল্প নেই, নৌকা মার্কা পেলে তিনি শতভাগ জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী, কেননা ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে বর্তমান রংপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পর্যন্ত দীর্ঘদিন থেকে রংপুরের মানুষ ও রংপুরের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন, আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের সুখে দুখে সবসময় পাশে থেকেছেন এবং সহযোগিতা করেছেন। রংপুরের সুশীল সমাজের সাথে একটি ভালো সম্পর্ক রয়েছে, সবমিলিয়ে তিনি নৌকা প্রতীক পেলে সকল প্রকার বাধা পেরিয়ে উন্নয়নের রুপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রংপুর সদর ৩ আসন উপহার দিতে পারবেন। এজন্য তিনি রংপুরের সকল স্তরের মানুষের সহযোগিতা চেয়েছেন। সেই সাথে তিনি বলেন, তাঁর সাথে রংপুর জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ এবং সহযোগি সকল সংগঠনের নেতাকর্মীসহ রংপুরের সুশীল সমাজ, পেশাজীবি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ রয়েছেন। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন রংপুর মহানগর আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শাহাদত হোসেন, যুবলীগ নেতা সাজু, মহানগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী তুহিন, মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ, ২৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি রফিকুল আলম, ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি সিদ্দিক হোসেন, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম রেজা, ২১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম, ২৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল গণি দুলাল, সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ সনু, ২৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ কাওছার মামুন, ৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন সাজুসহ ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলালীগ এর নেতৃবৃন্দ। আলোচনা সভা শেষে নগরীর শাপলা চত্বর থেকে মোটর সাইকেল, নৌকা প্রতিক নিয়ে হেটে তুষার কান্তি মন্ডলের ছবি ও নৌকা সম্বলিত পোষ্টার ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে শোডাউন শুরু হয়। শোডাউনটি গ্রান্ড হোটেল মোড়, পায়রা চত্বর, কাচারী বাজার ও বঙ্গবন্ধু চত্বর থেকে পূনরায় রংপুর প্রেসক্লাবে গিয়ে শেষ হয়। শোডাউনে অংশ নেন ২৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মন্ডল, ১২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ওয়াহেদুজ্জমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম দুলাল, ১৭ নং ওয়ার্ডের সাধারণ আকমল হোসেন, ২৩ নং ওয়ার্ডের সভাপতি মহিউল মহি, ২ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, ৪ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, ৭ নং ওয়ার্ডের দুলাল চন্দ্র রায়, ১ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক কামরুজাজমান শাহীন, সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস, ১১ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক ডা: চম্পল কুমার রায়, ২৯ নং ওয়ার্ডের সভাপতি আব্দুর রব পাটোয়ারী রবু, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজার রহমান, ৩০ নং ওয়ার্ডের সভাপতি আঙ্গুর মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আনোয়্রা হোসেন আনু, ১৫ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী, ৩২ নং ওয়ার্ডের সভাপতি মাহবুবার মাহমুবব, ৩৩ নং ওয়ার্ডের সভাপতি নুর হোসেন, ৩২ সাধারণ সম্পাদক শাহাদত হোসেন. ২২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলামসহ আওয়ামীলীগের বিভিন্ন সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী এবং বিভিন্ন পেশাজীবি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।