,


ম্যান্ডেটবিহীন সরকার পুলিশকে দলীয়করণ করেছে: রুমিন ফারহানা

ম্যান্ডেটবিহীন সরকার পুলিশকে দলীয়করণ করেছে: রুমিন ফারহানা

ডেস্ক রিপোর্টারঃ  বিএনপির সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেছেন, দেশে অনেক হত্যাকাণ্ড ঘটলেও তার বিচার হয় না। জনগণের ম্যান্ডেটবিহীনভাবে ক্ষমতায় থাকার ফল স্বরূপ পুলিশকে পুরোপুরি দলীয়করণ করেছে সরকার। এদের (পুলিশের) যাবতীয় মুরদ দেখা যায় বিরোধী দলীয় কর্মীদের বিনা বিচারে হত্যা, গ্রেফতার, নির্যাতন আর কারাগারে প্রেরণের মধ্য দিয়ে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে রবিবার সংসদের বৈঠকে মাগরিবের নামাজের বিরতির পর কার্যপ্রণালী বিধির ৭১ বিধিতে জরুরি জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আনা নোটিশের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির এই এমপি আরও বলেন, দেশের কোথাও হত্যাকাণ্ড হলেই শুনতে পাই প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চায়। প্রধানমন্ত্রী তো নির্বাহী বিভাগের প্রধান। বিচার করবার জন্য তো আছে আইন, আদালত, বিচার বিভাগ। আর বিচার চাইতেই বা হবে কেন? যদি পুলিশ, প্রশাসন, আদালত তাদের নিজ নিজ দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করে, তাহলে তো বিচার চাওয়ার কোনো প্রশ্ন ওঠে না।
ব্যারিস্টার রুমিন আরো বলেন, বরগুনার রিফাত হত্যাকাণ্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চাঞ্চল্য সৃষ্টির পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী খুনিদের ধরার নির্দেশ দিয়েছেন। অথচ অপরাধী ধরার কথা পুলিশের এবং এটা তাদের রুটিন কাজ। এজন্য তারা জনগণের টাকায় বেতন পেয়ে থাকে। রিফাত সৌভাগ্যবান, তার হত্যার ভিডিও ফেসবুকে এসেছে। এ সময় গত এক মাসে ২২ জন কুপিয়ে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন বলেও তিনি উল্লেখ করে বলেন, তাদের খুনিদের ধরতে পুলিশের তেমন কোনো তৎপরতা প্রশাসনে দেখি না।

রুনি ফারহানা আরও বলেন, সাংবাদিক সাগর রুনি হত্যাকাণ্ড সাত বছর পেরিয়ে গেছে। তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার সময় ৬৫ বার পিছিয়ে গেছে। সম্ভবত এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে এমন সব ব্যক্তি জড়িত যাদের ধরার ক্ষমতা এই প্রশাসনের নেই। বিশ্বজিৎ হত্যাকাণ্ড ছিল বীভৎস একটি ঘটনা। এতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জড়িত বলে মূল আসামিরা মৃত্যুদণ্ডের বাইরে থেকে যায়। তিনি বলেন, ইতিমধ্যেই খবর আসছে রিফাতকে বাঁচানোর জন্য বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সহ সভাপতি অত্যন্ত তৎপর আছেন। জনগণের ম্যান্ডেন্ডবিহীনভাবে ক্ষমতায় থাকার ফলস্বরূপ পুলিশকে পুরোপুরি দলীয়করণ করা হয়েছে। এদের যাবতীয় মুরদ দেখা যায় বিরোধী দলীয় কর্মীদের বিনা বিচারে হত্যা, গ্রেফতার, নির্যাতন আর কারাগারে প্রেরণের মধ্য দিয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: