,


ব্রাজিলের দিনে না দেখেও গোল করা যায়!
ব্রাজিলের দিনে না দেখেও গোল করা যায়!

ব্রাজিলের দিনে না দেখেও গোল করা যায়!

ডেস্ক রিপোর্টারঃ কোপা আমেরিকায় নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে পেরুকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে স্বাগতিক ব্রাজিল। সাও পাওলোতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে বুদ্ধিদীপ্ত ‘নো লুক’ গোল করেছেন রবার্তো ফিরমিনো।

ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে একটি গোলের জন্য কত হাপিত্যেশই না করেছে ব্রাজিল! তিনবার বল জালে পাঠানোর পরও ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির জন্য ( ভিএআর) গোলের খাতা খুলতে পারেনি দলটি। ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় স্বাগতিকদের। তারপর চার দিনের ব্যবধানেই ভোজবাজির মতো বদলে গিয়ে পেরুকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ব্রাজিল। দিনটা স্বাগতিকদের জন্য এতটাই সোনায় সোহাগা ছিল যে দলের দ্বিতীয় গোলটি পোস্টের দিকে না তাকিয়েই করেছেন রবার্তো ফিরমিনো।

১৯ মিনিটে ফিরমিনোর বুদ্ধিদীপ্ত গোলে পেরু গোলরক্ষক পেদ্রো গলেসের অবদান কম নয়। বক্সের মধ্যে থেকে বল ‘ক্লিয়ার’ করতে গিয়ে ফিরমিনোর গায়ে মারেন গোলরক্ষক। ফিরতি বল সাইড পোস্টে লেগে এসে পড়ে ফিরমিনোর পায়ের সামনে। তখন ব্রাজিল ফরোয়ার্ডের সামনে শুধুই গোলরক্ষক। তাঁকে ইনসাইড কাটে ঘোল খাইয়ে ফাঁকা পোস্ট তৈরি করে নিয়ে অন্যদিকে তাকিয়ে বল জালে পাঠিয়েছেন ফিরমিনো। বড় জয়ে একটি গোলই এসেছে লিভারপুল ফরোয়ার্ডের পা থেকে।

ফিরমিনোর ‘নো লুক’ গোলটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বেশ সাড়া ফেলেছে। তবে আজই প্রথম পোস্টের দিকে না তাকিয়ে গোল করেননি ব্রাজিলের লিভারপুল তারকা। ক্যারিয়ারের শুরুতেও তাঁর পা থেকে দেখা গিয়েছে দৃষ্টিনন্দন গোল। জার্মান বুন্দেসলিগায় হফেনহেইমের জার্সিতে খেলার সময় ওয়ের্ডার ব্রেমেনের বিপক্ষে করা একটি গোলের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন ফিরমিনো, ‘আমার মনে আছে পোস্টের দিকে না তাকিয়ে প্রথম গোলটা করেছিলাম হফেনহেইমে খেলার সময় ওয়ের্ডার ব্রেমেনের বিপক্ষে। আজকের গোলটি অনেকটা সেই গোলের মতোই।’

তবে এভাবে গোল করতে গিয়ে সুযোগ হাতছাড়া করার ঝুঁকি থেকেই যায়। সে বিষয়টিও শিকার করেছেন ফিরমিনো, ‘গোলরক্ষককে পরাস্ত করার পর চিন্তাটা আমার মাথায় আসে। এটা বিপজ্জনক। গোলের সুযোগ হাতছাড়া হতে পারে। কিন্তু সুযোগটা যখন এসেছে, আমি কাজে লাগিয়েছি।’

শুধু ফিরমিনোর গোলটিই নয়, ব্রাজিলের প্রতিটি গোলই আজ সুরভি ছড়িয়েছে। সাও পাওলোর করিন্থিয়ানস অ্যারিনার গ্যালারিতে উঠেছিল হলুদ ঢেউ। প্রথমার্ধেই ৩-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে এসেছে বাকি দুটি গোল। ফিরমিনোর ‘নো লুক’ গোলের ম্যাচে একটি করে গোল করেছেন কাসেমিরো, এভারটন, দানি আলভেজ ও উইলিয়ান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: