,


বিষয়টা সৌম্যকেও ভাবচ্ছে
বিষয়টা সৌম্যকেও ভাবচ্ছে

বিষয়টা সৌম্যকেও ভাবচ্ছে

ডেস্ক রিপোর্টারঃ সৌম্য সরকার অসাধারণ খেলেছিলেন আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে। বিশ্বকাপের শুরুটাও মন্দ হয়নি। কিন্তু প্রত্যাশা অনুযায়ী লম্বা ইনিংস আসেনি বাঁহাতি ওপেনারের কাছ থেকে ভারত এখন ম্যানচেস্টারে, আজ খেলছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। এরপর ইংল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচ শেষে তবেই বার্মিংহাম নিয়ে চিন্তা করবে তারা। বাংলাদেশ বার্মিংহামে এসেছে দুদিন আগে। অবশ্য আগে আসলেই কী, লম্বা বিরতি কাজে লাগিয়ে ক্রিকেটারদের সবাই ছুটিতে। সৌম্য সরকার একটু ব্যতিক্রম! কোথাও ঘুরতে–টুরতে যাননি, হোটেলেই আছেন। বেলা ১১টার দিকে নিচে নামলেন দুটো কাজে—সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলা আর ফিটনেস নিয়ে কাজ করা।

বিয়ে করেননি, স্ত্রী–সন্তানের প্রসঙ্গের তো প্রশ্ন আসে না। সতীর্থদের অনেকের মতো পরিবার সঙ্গে নেই বলে কোথাও ঘুরতে বের হলেন না? সৌম্য হাসলেন বটে, কিন্তু তিনি গভীর চিন্তায়। বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ডে কী দুর্দান্ত একটা সিরিজই না গেল তাঁর। বিশ্বকাপের শুরুটাও মন্দ ছিল না। ওভালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে করেছিলেন ৪২ রান। কিন্তু পরে ইনিংস আরও প্রত্যাশা অনুযায়ী বড় করতে পারেননি। বিশ্বকাপের প্রায় শেষ দেখা যাচ্ছে। এখনো সে ইনিংসটাই সৌম্যের সেরা হয়ে আছে! ৪২, ২৫, ২, ২৯, ১০, ৩—৬ ম্যাচে ১৮.৫০ গড়ে সৌম্যর রান ১১১।

সৌম্য ভালো করেই জানেন, দলকে ভালো শুরু এনে দিতে, ব্যাটিং অর্ডারের পরের ব্যাটসম্যানদের ভালো সুযোগ করে দিতে তাঁকে ইনিংসটা লম্বা করতেই হবে। বাঁহাতি ওপেনার উপলব্ধি করতে পারছেন, পেছনের ভুলগুলোর পুনরাবৃত্তি করা যাবে না, ‘যে সময়ে আউট হয়েছি তখন রান আসছিল। আরও কিছুটা সময় যদি উইকেটে থেকে রান করতে পারি, পেছনের ব্যাটসম্যানরা সহজভাবে এগোতে পারবে। ওই পরিস্থিতিতে যদি আমি আরেকটু রান করতে পারি, পরের ব্যাটসম্যানরা একটু সময় পাবে। তাতে দলের স্কোর অনেক বড় হবে। আমার সব সময়ই পরিকল্পনা এমনই থাকে। অনেক সময় উইকেট কঠিন থাকলেও চেষ্টা থাকে এমনভাবে খেলতে যেন রানের ধারাটা ঠিক রাখতে। পেছনের ব্যাটসম্যানরা যেন মনে না করে উইকেট অনেক কঠিন, এখানে হবে না। সব সময়ই ইতিবাচক মনোভাবে খেলতে চাই।’

সৌম্যকে বিষয়টা ভাবাচ্ছে মানে তিনি ভেতরে ভেতরে ভালো করার ভীষণ তাড়না অনুভব করছেন। ভারতের ম্যাচটাই যদি হয় তাঁর রানখরা কাটিয়ে ওঠার ম্যাচ, এজবাস্টনে ভারতীয় বোলারদের মুখে সেদিন হাসি থাকবে না নিশ্চিত! এখন সৌম্য হাসবেন না ভারতীয় বোলাররা, সেটিই দেখার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: