,


বিনামূল্যে টোয়েক পরীক্ষা দিল ৩২ তরুণ
বিনামূল্যে টোয়েক পরীক্ষা দিল ৩২ তরুণ

বিনামূল্যে টোয়েক পরীক্ষা দিল ৩২ তরুণ

ডেস্ক রিপোর্টারঃ যাদের মাতৃভাষা ইংরেজি নয় তাদের ইংরেজির দক্ষতা যাচাই করতে টেস্ট অব ইংলিশ ফর ইন্টারন্যাশনাল কমিউনিকেশনস বা টোয়েক। বিশ্বের ১৬০টি দেশ এই পদ্ধতিতে শিক্ষার্থী বা কর্মীদের দক্ষতা যাচাই করে। প্রায় ৮ হাজার টাকা সমমূল্যের এই পরীক্ষা বিনামূল্যে দেওয়ার সুযোগ পায় ক্রাউন সিমেন্ট-প্রথম আলো তারুণ্যের জয়োৎসবের অংশগ্রহণকারীরা।

আজ শুক্রবার প্রথম আলো কার্যালয়ে এ পরীক্ষায় অংশ নেন ৩২ জন অংশগ্রহণকারী।

টেস্ট অব ইংলিশ অ্যাজ আ ফরেইন ল্যাঙ্গুয়েজ (টোফেল) এবং ইন্টারন্যাশনাল ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টেস্টিং সিস্টেম (আইইএলটিএস) এর মতো টোয়েক ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে বিশ্বজুড়ে। প্রতিবছর বিশ্বের প্রায় ৭০ লাখ মানুষ এই পরীক্ষা দেন। মাত্র এক বছর হয়েছে এই পরীক্ষা বাংলাদেশ থেকে দেওয়া যায়। প্রবাসী কর্মী নিয়োগ তো বটেই, অনেক বিশ্ববিদ্যালয় গ্রহণ করে ইংরেজির দক্ষতা যাচাইয়ের এই পরীক্ষার ফলাফল।

টোয়েকের এমন গ্রহণযোগ্যতার কারণে, গত ২৪ এপ্রিল ঢাকার কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে অনুষ্ঠিত হওয়া ক্রাউন সিমেন্ট-প্রথম আলো তারুণ্যের জয়োৎসবের জাতীয় পর্বে টোয়েক নিয়ে একটি সেশন হয়। পাশাপাশি অংশগ্রহণকারীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়, টোয়েক নিয়ে একটি ওয়ার্কশপ ও মক টেস্টে অংশ নিতে।

সে অনুযায়ী গত ১৮ ও ১৯ মে আগ্রহীদের নিয়ে প্রথম আলো কার্যালয়ে টোয়েক কর্মশালায় আয়োজন করা হয়। প্রথম কর্মশালা শেষে অনুষ্ঠিত হয় মক টেস্ট। মক টেস্টে উত্তীর্ণ ৩৫ জনকে আমন্ত্রণ জানানো হয় বিনামূল্যে টোয়েক টেস্টে অংশ নিতে, যার মধ্যে ৩২ জন শুক্রবার এ পরীক্ষা দেন।

টোয়েক বাংলাদেশের নির্বাহী রেশাদ রসুল কাজী বলেন, বিদেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স বা পিএইচডি করতে হলে এই পরীক্ষা অত্যাবশ্যকীয়, আন্তর্জাতিক বাজারে কর্মীদেরও টোয়েক পরীক্ষার নাম্বারের ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হয়।

শুক্রবার এই পরীক্ষায় অংশ নেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন সায়েন্স ও লাইব্রেরি ম্যানেজমেন্টের শিক্ষার্থী আনিকা হোসেন। তিনি বলেন, আমি উচ্চশিক্ষার জন্য জাপান বা তাইওয়ানে যেতে চাই, এ দেশগুলো টোয়েক পরীক্ষার স্কোর চাচ্ছে। তারুণ্যের জয়োৎসবে অংশ নিয়ে আমি জানতে পারি এই পরীক্ষায় এখন বাংলাদেশ থেকেও অংশ নেওয়া যায়। আমি এতে আবেদন করি এবং বিনামূল্যে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য মনোনীত হই।

টোয়েক পরীক্ষার এই সুযোগ করে দেওয়ার জন্য তারুণ্যের জয়োৎসবের মতো আয়োজনকে ধন্যবাদ জানান আনিকা।

টোয়েক পরীক্ষা ক্রাউন সিমেন্ট-প্রথম আলো তারুণ্যের জয়োৎসবের তরুণদের দক্ষতা বৃদ্ধি কার্যক্রমের একটি অংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: