,


বালাকোটের হামলার পর দিল্লির চিন্তা বাড়ানো পাকিস্তানি ডুবোজাহাজের খোঁজ পেল ভারত
বালাকোটের হামলার পর দিল্লির চিন্তা বাড়ানো পাকিস্তানি ডুবোজাহাজের খোঁজ পেল ভারত

বালাকোটের হামলার পর দিল্লির চিন্তা বাড়ানো পাকিস্তানি ডুবোজাহাজের খোঁজ পেল ভারত

ডেস্ক রিপোর্টারঃ পুলওয়ামায় পাকিস্তানি জঙ্গিগোষ্ঠীর হামলায় ভারতের ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান নিহত হন। এ আত্মঘাতী হামলার প্রতিশোধে পাকিস্তানে ঢুকে বালাকোটে বিমান হামলা চালায় ভারত। বালাকোট হামলার পরপরই ভারত সীমান্তে পাকিস্তানের একটি ডুবোজাহাজ হঠাৎই উধাও হয়ে যায়। সেই ডুবোজাহাজ হামলা চালাতে পারে—এ আশঙ্কায় ভারত হন্য হয়ে সেই ডুবোজাহাজ খুঁজেছিল।

ভারতীয় নৌবাহিনীর ধারণা, গোপনে হামলা চালানোর মতো পরিস্থিতি তৈরি হলে ডুবোজাহাজকে ব্যবহারের পরিকল্পনা করেছিল ইসলামাবাদ। তাই সেটিকে আড়ালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

ইন্ডিয়া টুডে ও টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, পুলওয়ামা-বালাকোট পর্বে ‘পিএনএস-সাদ’ নামে পাকিস্তানের একটি ডুবোজাহাজ দিল্লিকে রীতিমতো দুশ্চিন্তায় ফেলেছিল। নৌবাহিনীর এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বালাকোট হামলার পরই পাকিস্তানের অত্যাধুনিক সাবমেরিন ‘পিএনএস সাদ’ হঠাৎই উধাও হয়ে যায়। প্রায় ২১ দিন ধরে সেটির খোঁজ চালিয়েছিল ভারতীয় নৌবাহিনী।

নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তারা জানান, পিএনএস সাদের এই রহস্যজনকভাবে উধাও হয়ে যাওয়ার ঘটনা ভারতীয় নৌবাহিনীকে সক্রিয় হতে বাধ্য করে। তিনি বলেন, ‘করাচি–সংলগ্ন যে অঞ্চল থেকে পিএনএস সাদ উধাও হয়েছিল, সেখান থেকে গুজরাট উপকূল পৌঁছাতে মাত্র তিন দিন সময় লাগে। আবার মুম্বাইয়ে অবস্থিত নৌবাহিনীর ওয়েস্টার্ন সদর দপ্তর পৌঁছাতে সময় লাগে মাত্র পাঁচ দিন। তাই জাতীয় সুরক্ষা বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কা করেছিলাম আমরা।’

নিখোঁজ পাকিস্তানের সাবমেরিনটি খুঁজে পেতে বিশেষ অ্যান্টি-সাবমেরিন রণতরি ও যুদ্ধবিমানগুলোকে কাজে লাগায় ভারত। পি-৮ আই বিমানগুলোকে ব্যবহার করে ভারত। এ ছাড়া পরমাণু অস্ত্রবাহী সাবমেরিন আইএনএস চক্র, স্করপেনি ক্লাস সাবমেরিন আইএনএস কালভারিকে পাকিস্তানি জলসীমা–সংলগ্ন এলাকায় মোতায়েন করে ভারতের নৌ সেনারা। বালাকোট হামলার পর অনেক খোঁজাখুঁজিতে ২১ দিন পর পাকিস্তানের পশ্চিম দিকে পিএনএস সাদের খোঁজ মেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: