,


বাংলাদেশকে স্পিনে ‘উড়িয়ে’ দেওয়ার হুমকি আফগানিস্তানের

বাংলাদেশকে স্পিনে ‘উড়িয়ে’ দেওয়ার হুমকি আফগানিস্তানের

ডেস্ক রিপোর্টারঃ কাল সাউদাম্পটনে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। তার আগে তামিম-মুশফিকদের স্পিন দিয়ে ঘায়েল করার হুমকি দিয়ে রাখলেন আফগান অধিনায়ক গুলবদিন নাইব

ভারতের বিপক্ষে জয়ের আশা জাগিয়েও পারেনি আফগানিস্তান। মোহাম্মাদ শামি ম্যাচের শেষ ওভারে এবারের প্রথম হ্যাটট্রিক করে আফগানদের ১১ রানের হার উপহার দেন। কিন্তু নিজেদের ‘স্পিন’ দিয়ে স্পিনে পারদর্শী ভারতীয় বাঘা বাঘা সব ব্যাটসম্যানদের কুপোকাত করা আফগানরা ম্যাচ থেকে অনেক আত্মবিশ্বাস কুড়িয়ে নিয়েছেন। তাই তো একই মাঠে পরের ম্যাচে বাংলাদেশকে পেয়ে আগে থেকেই যেন হুংকার ছুড়ে দিলেন আফগান দলপতি।

বিশ্বকাপের অন্য দলগুলোর তুলনায় আফগান ক্রিকেট এখনো নবীন। মাত্র নিজেদের দ্বিতীয় বিশ্বকাপ খেলছে আফগানিস্তান। বিশ্বকাপ জয় বা অন্তত সেমিফাইনাল খেলা এখনো অনেক দূরের পথ। তবুও বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে অভিজ্ঞতার ঝুলি সমৃদ্ধ করতে চায় নাইব-রশিদরা, সঙ্গে দু-একটি বড় দলের বিপক্ষে জয়ের সুখস্মৃতিও নিয়ে যেতে পারলেও মন্দ হয় না! কিন্তু বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে হেরে নিজেদের এখন পর্যন্ত খেলা ৬ টি ম্যাচেই হারের মুখ দেখেছে তাঁরা।

ভারতের বিপক্ষে তাদের মূল শক্তি স্পিন সাউদাম্পটনে হালে পানি পাওয়ায় পরের ম্যাচগুলো নিয়ে কিছুটা আশার সঞ্চার হয়েছে আফগানদের মাঝে। কোহলি-রোহিতরা যেভাবে নাকানি-চুবানি খেয়েছে আফগান স্পিনের সামনে, দেখে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা সতর্ক হয়ে গেছেন নিশ্চিত।

তবুও কাল বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের শক্তি স্পিন দিয়েই বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানদের ধরাশায়ী করার বার্তা দিয়ে রাখলেন আফগান অধিনায়ক, ‘এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ দারুণ খেলছে। তবে আমরা গতকাল যেমন বোলিং করে বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটিং লাইনআপকে ভয় ধরিয়ে দিয়েছি, সেটা আমাদের আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে। তাই যদি উইকেট স্পিনারদের অনুকূলে থাকে, শুধু বাংলাদেশ কেন, যেকোনো দলেরই আমাদের বিপক্ষে খেলা কঠিন হবে।’ নাইব আরও বলেন, ‘আমরা জানি বাংলাদেশ তিন শর ওপর রান তাড়া করে ম্যাচ জিতেছে। তাদের ব্যাটিং অনেক শক্তিশালী, কিন্তু আমরা আমাদের স্পিন অ্যাটাক নিয়ে তৈরি থাকব।’

এদিকে ভারতের বিপক্ষে যেই মাঠে আফগানদের স্পিন অ্যাটাক জ্বলে উঠেছিল, সেই রোজ বোলেই বাংলাদেশের মোকাবিলা করবে তারা। তাই কন্ডিশন এবং উইকেট নিয়েও স্বস্তি ঝরল নাইবের কথায়, ‘আমরা আগে যেই উইকেটগুলোতে খেলেছি, সেগুলোর থেকে এই মাঠ এবং উইকেট একেবারে আলাদা। এতটা বৈপরীত্য আমরা আশা করিনি। এই উইকেট আমাদের জন্য ভালো, এশিয়ান উইকেটের মতো, বল টার্ন করে বেশ।’

আগামীকাল আফগানিস্তানের বিপক্ষে সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখার ম্যাচ তাই বাংলাদেশকে আফগান স্পিন নিয়ে বিশেষভাবে ভাবতে হচ্ছে। রশিদ-মুজিবদের স্পিন আক্রমণকে সামাল দিতে নিশ্চয়ই আলাদা পরিকল্পনা নিয়েই মাঠে নামবে স্টিভ রোডসের শিষ্যরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: