,


ইতিমধ্যে স্বীকার করেছেন ক্যামিলা, চার বছর ধরেই একসঙ্গে গান করতে চাইছিলেন তাঁরা। কিন্তু নিজেদের ম্যানেজারের কারণে সেটা করা হয়ে ওঠেনি শন বা ক্যামিলা কারোরই। অবশ্য ‘সেনোরিটা’ গানের জন্য প্রায় ১০ মাস ধরে চেষ্টা করে ক্যামিলাকে রাজি করিয়েছেন শন। ভক্তরা বেশ খেপে যাবে ক্যামিলার এই অনীহার কথা শুনে, সেটাও জানেন বলে উল্লেখ করেছেন এই শিল্পী। অবশ্য নিজেদের প্রথম মিউজিক ভিডিওর চেয়ে এই ভিডিও একেবারেই আলাদা বলে মনে করছেন তাঁরা। প্রথম ভিডিওতে দূরে দূরে থাকলেও সেনোরিটাতে ভালোবাসার কোনো অভাবই নেই! এরই মধ্যে সেনোরিটা গানের ভিডিওর অনেক মর্মার্থ বের করে ফেলেছেন ভক্তরা। এই গানের ভিডিওতে নাকি শন আর ক্যামিলা বাস্তব প্রেমের জীবনটাই উঠে এসেছে। অর্থাৎ একে অন্যকে ভালোবাসলেও ঠিক কাছাকাছি আসতে পারছেন না, সেটাই গানের ভিডিওর ভেতরের বার্তা ছিল। আসলেও কি তাই? ক্যামিলা আর শন কি ডুবে ডুবে জল খাচ্ছেন? প্রশ্নগুলোতে এই জুটির কিছু যায়–আসে না। কারণ সময়টা তো এখন শুধুই ভালোবাসা, আর সেনোরিটার।

প্রেমের ইঙ্গিত গানে গানে

বিনোদন ডেস্কঃ শুরুটা হয়েছিল ২০১৫ সালে। ‘আই নো হোয়াট ইউ ডিড লাস্ট সামার’ গানের মাধ্যমে জুটি বাঁধেন শন মেন্ডিস আর হালের সেনসেশন ক্যামিলা কাবেও। গান আর মিউজিক ভিডিও দিয়ে ভক্তদের মনে উষ্ণতা ছড়িয়েছিলেন দুই শিল্পী তখন। তবে সব সময় এ ব্যাপারে চুপচাপ থাকতেই পছন্দ করেছেন শন আর ক্যামিলা। এবার অবশ্য লাতিন আর ইংরেজির মিশেলে গাওয়া ‘সেনোরিটা’ গানের মাধ্যমে আবার নিজেদের মধ্যকার রসায়নের ব্যাপারে জানান দিলেন এই দুজন। যাঁরা শন আর ক্যামিলাকে এত দিন জুটি বলে ভাবেননি, তাঁরাও যেন এবার অস্বীকার করতে পারছেন না দুজনের ধোঁয়া ওঠা রসায়নকে। মনে মনে অনেকে এই জুটির বিয়ের দিনক্ষণটাও কল্পনা করে ফেলছেন।

ভক্তদেরই–বা দোষ কী! একে তো ভালোবাসা আর মাদকতায় ভরা গানের প্রতিটি লাইন। তার ওপরে আছে মিউজিক ভিডিওতে শন আর ক্যামিলার আগুন ঝরানো উপস্থিতি। বন্ধু, প্রেমী—কী আসে যায় তাতে? ২০ জুন প্রকাশিত ভিডিওটি এখন পর্যন্ত প্রায় ১৩ কোটি বার ইউটিউবে দেখা হয়ে গেছে। ওদিকে ক্যামিলা আর শনও কম যান না। মুখরোচক সব খবর তৈরির সব উপাদানই দিয়ে চলেছেন তাঁরা একের পর এক।

ইতিমধ্যে স্বীকার করেছেন ক্যামিলা, চার বছর ধরেই একসঙ্গে গান করতে চাইছিলেন তাঁরা। কিন্তু নিজেদের ম্যানেজারের কারণে সেটা করা হয়ে ওঠেনি শন বা ক্যামিলা কারোরই। অবশ্য ‘সেনোরিটা’ গানের জন্য প্রায় ১০ মাস ধরে চেষ্টা করে ক্যামিলাকে রাজি করিয়েছেন শন। ভক্তরা বেশ খেপে যাবে ক্যামিলার এই অনীহার কথা শুনে, সেটাও জানেন বলে উল্লেখ করেছেন এই শিল্পী। অবশ্য নিজেদের প্রথম মিউজিক ভিডিওর চেয়ে এই ভিডিও একেবারেই আলাদা বলে মনে করছেন তাঁরা। প্রথম ভিডিওতে দূরে দূরে থাকলেও সেনোরিটাতে ভালোবাসার কোনো অভাবই নেই! 

এরই মধ্যে সেনোরিটা গানের ভিডিওর অনেক মর্মার্থ বের করে ফেলেছেন ভক্তরা। এই গানের ভিডিওতে নাকি শন আর ক্যামিলা বাস্তব প্রেমের জীবনটাই উঠে এসেছে। অর্থাৎ একে অন্যকে ভালোবাসলেও ঠিক কাছাকাছি আসতে পারছেন না, সেটাই গানের ভিডিওর ভেতরের বার্তা ছিল। আসলেও কি তাই? ক্যামিলা আর শন কি ডুবে ডুবে জল খাচ্ছেন? প্রশ্নগুলোতে এই জুটির কিছু যায়–আসে না। কারণ সময়টা তো এখন শুধুই ভালোবাসা, আর সেনোরিটার। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: