,


পাকিস্তানের আশা উসকে দিতে পারবে নিউজিল্যান্ড?
পাকিস্তানের আশা উসকে দিতে পারবে নিউজিল্যান্ড?

পাকিস্তানের আশা উসকে দিতে পারবে নিউজিল্যান্ড?

ডেস্ক রিপোর্টারঃ চেস্টার লি স্ট্রিটে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আগে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ৩০৫ রান তুলেছে ইংল্যান্ড। সেঞ্চুরি করেছেন জনি বেয়ারস্টো
পাকিস্তানের ক্রিকেটপ্রেমীরা আজ নিউজিল্যান্ডের সমর্থক। চেস্টার লি স্ট্রিটে ইংল্যান্ড আজ হারলে পাকিস্তানের সুবিধা। তখন নিজেদের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশকে হারাতে পারলেই সেমিফাইনাল নিশ্চিত হবে সরফরাজ আহমেদের দলের। সে জন্য সবার আগে আজ নিউজিল্যান্ডকে জিততে হবে। পাকিস্তান ক্রিকেটপ্রেমীদের এ আশা কি পূরণ হবে? আগে ব্যাটিংয়ে নেমে দুর্দান্ত শুরুতে সাড়ে তিন শ রানের ওপাশে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিল স্বাগতিকেরা। কিন্তু কিউই বোলাররা ঘুরে দাঁড়ানোয় শেষ পর্যন্ত কোনোমতে ইংল্যান্ড যেতে পেরেছে তিন শ রানের ওপাশে।

জনি বেয়ারস্টোর সেঞ্চুরি আর জ্যাসন রয়ের ফিফটিতে ভর করে ৮ উইকেটে ৩০৫ রান তুলেছে এউইন মরগানের দল। তবে টস জিতে ইংল্যান্ডের আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্তটা প্রথম বলেই ভুল প্রমাণের দিকে যেতে পারত। স্পিনার মিচেল স্যান্টনারের হাতে নতুন বল তুলে দিয়ে দীপক প্যাটেলের স্মৃতি ফিরিয়ে এনেছিলেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

স্যান্টনারের প্রথম বলেই বড় বাঁচা বেঁচে যান ইংলিশ ওপেনার জ্যাসন রয়। বাঁহাতি এ স্পিনারের ‘আর্মার’ অফ স্ট্যাম্পের বাইরে থেকে বেশ গতি নিয়ে ঢুকেছে স্টাম্পে। রয় কাট করার চেষ্টা করলেও বল সীমানা পার হয়েছে ব্যাট ও স্টাম্প ফাঁকি দিয়ে! এরপর অবশ্য সেই চেনা ইংল্যান্ডকে দেখা গেলেও ইনিংসের প্রায় মাঝপথ থেকে ইংল্যান্ড খেই হারিয়েছে।

১৯তম ওভারে জিমি নিশাম রয়কে তুলে নেওয়ার আগে উদ্বোধনী জুটিতে ১২৩ রান তুলেছে ইংল্যান্ড। রয়-বেয়ারস্টোর কল্যাণে বিশ্বকাপে এই প্রথমবারের মতো ওপেনিং জুটিতে তৃতীয়বারের মতো ন্যূনতম শতরানের দেখা পেল স্বাগতিকেরা। রয় ৬০ রানে ফিরলেও অন্য প্রান্তে টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন বেয়ারস্টো। ৯৯ বলে ১০৬ রান করে দারুণ এক ইতিহাসই গড়লেন এ ওপেনার। বেয়ারস্টোর আগে ইংল্যান্ডের কোনো ব্যাটসম্যানই বিশ্বকাপে টানা দুই সেঞ্চুরি করতে পারেননি।

৩২তম ওভারে বেয়ারস্টোকে তুলে নেন ম্যাট হেনরি। ইংল্যান্ডের ওভারপ্রতি রান তোলার গড় ছিল সাড়ে ছয়ের কাছাকাছি। এরপর এক মরগান ছাড়া পরের ব্যাটসম্যানরা সেভাবে থিতু হতে না পারায় রান তোলার হার কমেছে ইংল্যান্ডের। ৪০তম ওভারের আগে জস বাটলারকে (১১) হারিয়ে সাড়ে তিন শ ছুঁইছুঁই স্কোরের পথ থেকে ছিটকে পড়ে ইংল্যান্ড। ৪০তম ওভার শেষে স্বাগতিকদের সংগ্রহ ছিল ৪ উইকেটে ২৪১। এখান থেকে শেষ ১০ ওভারে মাত্র ৬৪ রান তুলতে পেরেছে ইংল্যান্ড।

ইংল্যান্ড অধিনায়ক মরগানের ব্যাট থেকে এসেছে ৪০ বলে ৪২ রান। বাজে শুরুর পর ইংল্যান্ডের ইনিংসের প্রায় মাঝপথ থেকে নিউজিল্যান্ডকে ম্যাচে ফিরিয়েছেন বোলাররা। ৪১ রানে ২ উইকেট নেন নিশাম। হেনরি আর বোল্টও ২টি করে উইকেট নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: