,


তিন বলে কোহলি-পান্ডিয়াকে মোস্তাফিজের জোড়া শিকার
তিন বলে কোহলি-পান্ডিয়াকে মোস্তাফিজের জোড়া শিকার

তিন বলে কোহলি-পান্ডিয়াকে মোস্তাফিজের জোড়া শিকার

ডেস্ক রিপোর্টারঃ ৯ রানে রোহিত শর্মার ক্যাচ ছেড়েছেন তামিম ইকবাল। সেই রোহিত থেমেছেন ১০৪ রান করে। কিছুক্ষণ পরে ৭৭ রান করে ফিরেছেন রাহুল। কোহলি-পন্তের ৪২ রানের জুটি ভেঙেছেন মোস্তাফিজ। ওই ওভারেই ফিরিয়েছেন পান্ডিয়াকে। ৩৮.৪ ওভারে ৪ উইকেট ২৩৭ রান ভারতের।
ম্যাচের তখন পঞ্চম ওভার। চতুর্থ বলটি একটু খাটো লেংথে করেছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। আয়েশ করে পুল করতে গিয়ে টাইমিংয়ে গড়বড় করে ফেলেন রোহিত শর্মা। মিডউইকেট ফিল্ডিং করছিলেন তামিম ইকবাল। বল বাতাসে ভেসে সেদিকে যাওয়ায় দিব্য দৃষ্টিতে অনেকেই রোহিতের ড্রেসিং রুমে ফেরা দেখতে পেয়েছিলেন। ভুল। রোহিতের সহজ ক্যাচটি তামিম দু হাত দিয়ে ধরার চেষ্টা করেও ফেলে দিলেন! ‘জীবন’ উপহার পাওয়ার পরের ওভারেই ছক্কা মেরে রোহিত বুঝিয়ে দিয়েছেন, ক্যাচ ছাড়ার অনেক বড় খেসারতই সম্ভবত দিতে হবে। রোহিত তখন ৯ রানে ব্যাট করছিলেন।

শেষ পর্যন্ত রোহিত আউট হয়েছেন সৌম্য সরকারের বলে ক্যাচ দিয়ে। ততক্ষণে ভারত উদ্বোধনী জুটিতে ১৮০ রান তুলে ফেলেছে। রোহিত এই বিশ্বকাপে নিজের চতুর্থ সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন। রানেও রোহিত এই আসরে সবার ওপরে। তাঁকে ওই আসন থেকে সরিয়ে দিতে পারেন যিনি, সেই সাকিব আল হাসানের আগে বল হাতে জাদু এখন বেশি দরকার।

স্কোরবোর্ডে আর ১৫ রান যোগ হতেই ফিরেছেন অন্য ওপেনার রাহুলও। ৭৭ রানে তাঁকে মুশফিকের ক্যাচ বানিয়েছেন রুবেল হোসেন। জোড়া এই আঘাতে ম্যাচে ফেরার প্রাণান্তকর চেষ্টা করেছে বাংলাদেশ। তাতে সুবিধা হয়নি। দ্রুতই ৪২ রানের জুটি গড়ে জোড়া ধাক্কা সামলে নিয়েছে পন্ত-কোহলি জুটি। শেষের ১০ ওভারের ঝড় তোলার মঞ্চটা তৈরি করছিল ভারত। তবে ৩৯তম ওভারে মোস্তাফিজের জোড়া আঘাত। প্রথমে কোহলিকে ডিপে ক্যাচ বানান। এক বল বিরতিতে পান্ডিয়া স্লিপে সৌম্য সরকারের অসাধারণ এক ক্যাচের শিকার হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: