তাড়াশে মা মনসা দেবীর পুজা সম্পূর্ন

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের তাড়াশে শ্রী শ্রী মা মনসার পুজা সম্পুর্ন করেছে তাড়াশ উপজেলার সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। এই পুজাটি করা হয় শ্রাবন মাসের শেষ তারিখে, মুলত পুজার উদ্দেশ্য পদ্দাদেবী কে তুষ্ট করা। আদি ধর্ম গ্রন্থে আছে চাঁদ সদাগরের পুত্র সন্তান ছিল ৭ টি তারা প্রত্যেকেই বিবাহিত ছিলেন। পদ্মাদেবী দেবীত্ব অর্জন করার জন্য তাঁর পিতা মহেশ্বরের নিটক থেকে বর গ্রহন করেন। কিন্তু পদ্মাদেবীর বাবা তাকে শর্তদেন যদি চাঁদ সদাগর তার পুজা করেন তাকে তাহলে দেবীত্ব দেবেন। কিন্তু চাঁদ সদাগর পদ্মাদেবীর পুজা দিতে রাজি হন না। পুজা না দেবার কারনে চাঁদ সদাগরকে তাঁরর ৭ টি সন্তানকে হারাতে হয় সর্প দংর্শনে। তবু চাঁদ সদাগর তাকে পুজা দিতে রাজি হন না। পরে বেহুলার সাথে বিবাহ হয় লক্ষীনদ্বয়রের তাদের লোহার বাসার ঘরে রাখা কিন্তু বাসর রাতেই সর্প দংশন করে লক্ষীনদ্বর কে। বেহুলা অনেক কষ্ট করে চাঁদ সদাগরকে রাজি করায় পদ্মাদেবীর পুজা করার জন্য। পুজায় সন্তুষ্ট হবার পর চাঁদ সদাগরের সকল সন্তানকে জীবিত করে দেন পদ্মাদেবী। সেই থেকে পদ্মা দেবী ও মনসা পুজার প্রচলিত হয়, আড়াই দিন পুজা অর্চনা করার পর বিসর্জন করা হয়। পুজায় ব্যবহার করা হয় নানা রকমের ফলফলাদি। পদ্মাদেবীর বাহন হাঁস। বাংলাদেশের প্রতি বাড়ি বাড়ি এই পুজা করা হয় ঘরোয়া ভাবে। এ বিষয়ে উপজেলার নওগাঁ গ্রামের বিনয় মাহাতো বলেন, আমার বাপ দাদারাও মা মনসার পূজা করতেন, আমি নিজেও প্রতি বছর মা মনসার পূজা করি। বর্তমানে জিনিসপত্রের মূল্য বেশি হওয়াতে পূজা করতে প্রচুর খরচ হয়।

ডেস্ক রিপোর্টার
একটি বাংলাদেশ - Ekti Bangladesh (ektibd.com) is a leading Online Newspaper & News Portal of Bangladesh. It covers Breaking News, Politics, National, International, Live Sports etc.