,


গণমাধ্যমকে সমাজের অসংগতিগুলো তুলে ধরে তার সমাধানে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে - মেনন

গণমাধ্যমকে সমাজের অসংগতিগুলো তুলে ধরে তার সমাধানে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে – মেনন

একটি বাংলাদেশ ডেস্কঃ সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, গণমাধ্যম হচ্ছে সমাজের দর্পণ স্বরূপ। সামাজিক উন্নয়ন বা সামাজিক বঞ্চনা এর কোনটিই গণমাধ্যমের দৃষ্টির বাইরের কিছু নয়। এক্ষেত্রে গণমাধ্যমকে কেবল নেতিবাচক ও মুখরোচক বিষয়কে তুলে ধরলেই চলবে না, গণমাধ্যমকে সমাজের অসংগতিগুলো তুলে ধরে তার সমাধানে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে।

আজ মঙ্গলবার পিআইবি’তে ‘পিআইবি- প্রবীণবন্ধু সম্মাননা ২০১৮ ও প্রবীণের অধিকার, টেকসই উন্নয়ন ও গণমাধ্যমের ভূমিকা’ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাশেদ খান মেনন বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় ৪০ লক্ষ প্রবীণকে সরকার সম্মানী ভাতা দিচ্ছে। আমাদের বর্তমান সরকার দেশের সকল খাতের মত প্রবীণ সহায়ক খাতেও ব্যপক উন্নয়ন ঘটিয়েছে। ২০০৮-০৯ অর্থ বছরে মোট ২০ লক্ষ প্রবীণ ব্যক্তিকে দেয়া হয়েছিল প্রায় ৬শ’ কোটি টাকা। বর্তমানে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রায় ৪০ লক্ষ প্রবীণ ব্যক্তির জন্য ২১শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। গত ১০ বছরে বর্তমান সরকার প্রায় ২ কোটি ৬৭ লক্ষ ৭০ হাজার প্রবীণ ব্যক্তিকে ১১ হাজার ৭৯৯ কোটি টাকা প্রদান করেছে বলেও জানান তিনি।

সমাজকল্যাণমন্ত্রী বলেন, শেষ বয়সে প্রবীণ ব্যক্তিদের অসহায়ত্বের কথা বিবেচনা করে দেশে এখন পিতা-মাতা ভরণ পোষণ আইন রয়েছে। তবে এই আইনের যথার্থ বাস্তবায়ন করার প্রয়োজন আমাদের রয়েছে। প্রবীণ নীতিমালা করা হয়েছে যাতে প্রবীণ ব্যক্তিরা বাসে, ট্রেনে, হাসপাতালসহ সকল যানবাহনে বিশেষ সুবিধা লাভ করে। সরকার প্রবীণদের জন্য প্রবীণ উন্নয়ন ফাউন্ডেশন আইন চালু করার ব্যাপারে নতুনভাবে উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে। তিনি বলেন, দেশের বীমা কোম্পানিগুলো যেন তাদের অন্যান্য বীমার মত প্রবীণদের নামে বয়স্ক বীমা স্কীম চালু করে সে ব্যাপারে বীমা কোম্পানিগুলোকে কাজ করতে হবে।

পিআইবি’র মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. কাজী খলিকুজ্জামান আহমদ, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক, একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রবীণ সাংবাদিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল লোহানী, প্রবীণ হিতৈষী সংঘ ও জরা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানের মহাসচিব অধ্যাপক ড. এ এস এম আতিকুর রহমান, মামস ইন্সটিটিউট এর সিইও অধ্যাপক সায়েবা আক্তার,হেল্প এইজ ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর রাবেয়া সুলতানা প্রমুখ।

মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন প্রবীণ বন্ধু ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মহসীন কবির। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পিআইবি অধ্যায়ন ও প্রশিক্ষণ বিভাগের পরিচালক আনোয়ারা বেগম।

অনুষ্ঠানে প্রবীণ ব্যক্তিদের জন্য বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ‘পিআইবি-প্রবীণবন্ধু সম্মাননা ২০১৮’ প্রদান করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: