,


এ কান্না তৃপ্তির এবং বড়ই সুখের
এ কান্না তৃপ্তির এবং বড়ই সুখের

এ কান্না তৃপ্তির এবং বড়ই সুখের

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ  ঘুষ ছাড়াই ঝিনাইদহ জেলায় এবার পুলিশে লোক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। চাকরী পেয়েছেন ৫৯ জন। এদের প্রত্যেকের খরচ হয়েছে মাত্র ১০০ টাকা। চাকরী প্রাপ্তদের মধ্যে অধিকাংকশরই পিতা দিনমজুর। কারো পিতা মৎস্যজীবী, কেউ রাজমিস্ত্রি, কেউ রিকসা ভ্যান চালক, কেউ এতিম কেউবা কৃষক। অর্থ বিত্তের জোরে এবার চাকরী হয়নি কারো। দালাল চক্র ভিড়তে পারেনি ধারে কাছে। মেধা ও যোগ্যতার বলে বিনা ঘুষে পুলিশে চাকরী পেয়েছেন ৫৯ জন। চাকরী পাওয়ার ঘোষনা শুনে খুশিত কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন অনেকের পিতা-মাতা। আর পরিচ্ছন্ন নিয়োগের কারিগর হচ্ছে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মো: হাসানুজ্জামান পিপিএম। তথ্য নিয়ে জানা গেছে, ঝিনাইদহে পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরীর জন্য প্রথম দিনে মাঠে উপস্থিত ছিলেন ৩,০৪৮ জন। তার মধ্যে লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেন ৩৪৮ জন। চুড়ান্ত ভাবে উত্তীর্ণ হন ৫৯ জন। পুলিশ সুপারের ঘোষনা অনুযায়ী স্বচ্ছভাবে নিয়োগের সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। ঝিনাইদহ পুলিশের ইতিহাসে ঘুষ বিহীন চাকরী প্রদান করায় বিভিন্ন মহল থেকে অভিনন্দন জানিয়েছেন পুলিশ সুপার মো: হাসানুজ্জামান পিপিএমকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ বিভিন্ন গনমাধ্যমে তিনি প্রশংসায় ভাসছেন। উল্লেখ্য এর আগে ঝিনাইদহের অনেক যুবক ভিটেবাড়ি বিক্রি করে চাকরী গ্রহনের ইতিহাস রয়েছে। সাবেক অনেক পুলিশ সুপার এমন অনৈতিক কাজের সাথে জড়িত ছিলেন। আবার কেও দালালদের ফাঁদে পড়ে নিঃস্ব হয়েছেন এমন কথাও শোনা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: