,


ইয়র্কার-জাদুর মন্ত্রটা বলে দিলেন বুমরা
ইয়র্কার-জাদুর মন্ত্রটা বলে দিলেন বুমরা

ইয়র্কার-জাদুর মন্ত্রটা বলে দিলেন বুমরা

ডেস্ক রিপোর্টারঃ ব্যাটসম্যানদের জন্য ইয়র্কার মানেই বিপদ। সেই ইয়র্কারই যদি কোনো বোলার বলে কয়ে করতে পারেন তাঁকে তো সেরার স্বীকৃতি দিতেই হয়। ইয়র্কার করার কী এমন জাদুমন্ত্র শিখেছেন যশপ্রীত বুমরা?
ইয়র্কার বিশেষজ্ঞ? নাকি ইয়র্কার-মাস্টার? ভারতীয় পেসার যশপ্রীত বুমরার নামের পাশে এখন দুটোই মানানসই। ইয়র্কার করাটা এখন যেন রীতিমতো অভ্যাসে পরিণত করেছেন ভারতীয় এই পেসার। কিন্তু এর পেছনে রহস্যটা কী? বুমরা জানিয়েছেন, শুধু অনুশীলনই নাকি তাঁকে এতটা পরিণত করেছে।

কাল ম্যাচের ৪৫তম ওভারে যশপ্রীত বুমরার বলে চার মারলেন রুবেল। এই চারেই যেন তেতে উঠলেন বুমরা। টেল এন্ডারের থেকে চার খাওয়াটা একটু তো আপত্তিকরই। ৪৭ তম ওভারের পঞ্চম বলে তাই রুবেলের উদ্দেশে করলেন ইয়র্কার ডেলিভারি। যা হওয়ার তাই, বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরলেন রুবেল। পরের বলে মোস্তাফিজকেও একই ইয়র্কারে পরাস্ত করলেন ভারতীয় এই পেসার। ইয়র্কার করাটা বুমরার কাছে যেন ডালভাত। চাইলেন আর দুম করে ইয়র্কার মেরে দিলেন, বুমরার বোলিং দেখলে এ রকমই মনে হয়!

তবে বুমরা জানালেন, নিখুঁত ইয়র্কারের পেছনে রহস্য নাকি শুধুই অনুশীলন, ‘আমি নেটে ইয়র্কার বারবার করতেই থাকি। যত বেশি আপনি এটা করবেন ততই আপনার নিয়ন্ত্রণে আসবে। আপনাকে অনুশীলন চালিয়ে যেতেই হবে। এটা আসলে অনুশীলনের ওপর নির্ভর করে। অন্যান্য বলের মতোই এটার জন্য বারবার অনুশীলন প্রয়োজন। আমি যখনই এটা নিয়ে কাজ করি তখনই বিভিন্ন অবস্থায় চেষ্টা করি। কখনো নতুন বলে, কখনো পুরোনো বলে।’

তবে ইয়র্কার দিতে নাকি মাথাটাও নাকি ঠান্ডা রাখা জরুরি। বুমরা বলেন, ‘আমি সব ধরনের বলই অনুশীলন করি। তারপর ম্যাচে সেটা প্রয়োগ করি। তবে আপনার মাথাও ঠান্ডা রাখতে হবে। যদি আপনার অনুশীলন ঠিক থাকে তাহলে প্রয়োগ করাটা অনেক বেশি সহজ হয়ে যায়।’

আর অনুশীলন করলে যে কী ভয়ংকর বোলার হওয়া যায়, সেটার জ্বলন্ত উদাহরণই তো বুমরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: