,


‘আর্টিকেল ফিফটিন’ নিষিদ্ধ?
‘আর্টিকেল ফিফটিন’ নিষিদ্ধ?

‘আর্টিকেল ফিফটিন’ নিষিদ্ধ?

ডেস্ক রিপোর্টারঃ ২০১৯ সালের ২৮ জুন অনুভব সিনহার জন্য একটা খুশির দিন হওয়ার কথা ছিল। কারণ, বহু প্রতীক্ষার পর সেদিন মুক্তি পেয়েছে এই পরিচালকের ‘আর্টিকেল ফিফটিন’ ছবিটি। আর এই ছবির অভিনেতা আয়ুষ্মান খুরানা বলেছেন, এটি এখন পর্যন্ত তাঁর জীবনের সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ ছবি।

সেই তাৎপর্য যে কানপুরের ব্রাহ্মণদের কাছে কীভাবে ধরা দিল, তা দেখে এই ছবির পুরো দলের মাথায় হাত। কানপুরের ব্রাহ্মণরা সিনেমা হলের সামনে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ করেছেন, আপত্তি জানিয়েছেন। তাঁরা এই ছবির পরিচালক, প্রযোজক ও অভিনেতার নাম ধরে ‘নিপাত যাক’ স্লোগান দিয়েছেন। অখিল ভারতীয় ব্রাহ্মণ একতা পরিষদ, সর্বব্রাহ্মণ মহাসভা, পরশুরাম সর্বকল্যাণ এবং ব্রাহ্মণ মহাসভা—ব্রাহ্মণদের এই সংগঠনগুলো যোগ দিয়েছে সেই প্রতিবাদ সভায়। পুলিশ কর্মকর্তা রাজকুমার আগারওয়াল বলেছেন, ‘সিনেমা শুরুর সঙ্গে সঙ্গে হলের সামনে পরিবেশ বিক্ষুব্ধ হতে শুরু করে। তাই সব কটি প্রেক্ষাগৃহে ছবিটির প্রদর্শনী বন্ধ রাখা হয়েছে।’ তবে ছবিটি নিষিদ্ধ করার ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোনো ঘোষণা পাওয়া যায়নি। কিন্তু বিভিন্ন ব্রাহ্মণ সংগঠন ছবিটি নিষিদ্ধ করার জন্য দাবি তুলেছে।

‘আর্টিকেল ফিফটিন’ মূলত একটা রাজনৈতিক চলচ্চিত্র। এখানে নারীদের প্রতি অত্যাচার, বর্ণবিদ্বেষ—এই বিষয়গুলো উঠে এসেছে। মনে হচ্ছে, বিষয়টি মোটেই ভালোভাবে নেয়নি ব্রাহ্মণরা। যদিও সমালোচকেরা ভালো রিভিউ দিয়েছেন ছবিটির। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের চলচ্চিত্র সমালোচক শুভ্রা গুপ্ত ছবিটিকে পাঁচের ভেতর তিন দিয়েছেন।

শুভ্রা গুপ্ত বলেছেন, ‘অনুভব সিনহার এর আগে তাঁর “মুল্ক” (২০১৮) ছবি দিয়ে তাঁর ওপর সবার প্রত্যাশা বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর সেই ছবি দেখে হিন্দু আর মুসলমানের প্রথাগত ধারণা ভেঙে যায়, বড় হয়ে দাঁড়ায় তাদের মানুষ সত্তা। আর এটি তিনি দেখিয়েছেন মূলধারার একটা ছবির মাধ্যমে। সেই ছবিটির মুক্তির এক বছরেরও কম সময়ে তিনি “আর্টিকেল ফিফটিন” মুক্তি দিয়েছেন। যদিও এই ছবিটি “মুল্ক”-এর মতো তাৎপর্যপূর্ণ নয়, তবে তা আগের ছবির মতোই সমান গুরুত্বপূর্ণ। ধর্মীয় গোঁড়ামি, বর্ণবৈষম্য আমাদের মাঝে চিরস্থায়ীভাবে দেয়াল টেনে দেয়। অন্যায় আর নির্যাতনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর বার্তা দেয়। তাই এই ছবিটা আমাদের সমাজের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।’

ছবি মুক্তির আগেই ব্রাহ্মণসমাজ এর বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়। তখন পরিচালক অনুভব সিনহা বলেন, ‘আমি জানি না এই বিরোধিতার কারণ কী। প্রথমে তাঁরা অভিযোগ করলেন আমি ছবিতে ব্রাহ্মণ সম্প্রদায়কে খারাপভাবে দেখিয়েছি। ছবিতে আমরা এসব কিছুই দেখাইনি। পাঁচ শতাধিক সাংবাদিক এবং চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত ১০০ জন এই ছবি দেখেছেন। তাঁরা বলেছেন, ছবিতে ব্রাহ্মণবিরোধী কিছু নেই।’

এদিকে জানা গেছে, মুক্তির প্রথম দিন ‘আর্টিকেল ফিফটিন’ ছবিটি আয় করেছে পাঁচ কোটি রুপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: