,


আদিত্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ কঙ্গনার?
আদিত্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ কঙ্গনার?

আদিত্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ কঙ্গনার?

ডেস্ক রিপোর্টারঃ দিনকাল মোটেও ভালো যাচ্ছে না বলিউড অভিনেতা ও প্রযোজক আদিত্য পাঞ্চোলির। বারবার আদালতে যাওয়া–আসা করতে হচ্ছে তাঁকে। এবার ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হলো তাঁর বিরুদ্ধে। এক অভিনেত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার তাঁর নামে মামলা করল মুম্বাইয়ের ভারসোভা থানার পুলিশ। অভিযুক্ত অভিনেতার নামে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬, ৩২৮, ৩৮৪, ৩৪১, ৩৪২, ৩২৩ ও ৫০ ধারায় মামলা হয়েছে। গত বুধবারের ঘটনা এটি। পুলিশ অভিযোগকারীর নাম উল্লেখ করেনি। তবে অনেকেই ধারণা করছেন কঙ্গনা রনৌতই এ অভিযোগ করেছেন।

ভারতের গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি বলছে, থানায় করা ওই অভিযোগে ওই অভিনেত্রী দাবি করেন, বেশ কয়েক বছর আগে তাঁকে বেশ কয়েকবার ধর্ষণ করেছেন আদিত্য। এ বিষয়ে সম্প্রতি অভিযুক্ত অভিনেতার নামে একটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন তিনি। অতীতেও এই বিষয়ে অভিযোগ জানিয়েছিলেন ওই অভিনেত্রী। তখন দাবি করেছিলেন, ১৭ বছর বয়সে প্রথম তাঁকে ধর্ষণ করেন আদিত্য। এই ঘটনার পর পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু, আদিত্যকে শুধু হুঁশিয়ারি দিয়েই ছেড়ে দেওয়া হয়। ধর্ষণের মতো গুরুতর অপরাধের পরও তাঁর নামে কোনো এফআইআর দায়ের করা হয়নি।

এ প্রসঙ্গে পুলিশ জানিয়েছে, অভিনেত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে একটি মামলা করা হয়েছে। তবে ১০ বছর আগে ঘটে যাওয়া ঘটনার প্রমাণ কীভাবে জোগাড় করা হবে, তা নিয়ে আলোচনা চলছে। উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণ পাওয়া না গেলে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণ করা খুবই সমস্যার।

একই দিনে অর্থাৎ বুধবারই আদিত্য পাঞ্চোলির দায়ের করা মানহানির মামলার পরিপ্রেক্ষিতে কঙ্গনা রনৌত ও তাঁর বোনের নামে সমন পাঠিয়েছে আন্ধেরি আদালত। আগামী ২৬ জুলাই এই মামলার শুনানিতে তাঁদের হাজির থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ কারণে অনেকেই ধারণা করেছেন কঙ্গনা রনৌতই আদিত্য পাঞ্চোলির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। এমনিতে ‘ঠোঁটকাটা’ বা ‘স্পষ্টভাষী’ হিসেবেও বলিউডে তাঁর পরিচিতি আছে। বেফাঁস কথা বলে বিপাকেও পড়েছেন বহুবার। তাঁর সঙ্গে এখন পর্যন্ত আদিত্য পাঞ্চোলি, অজয় দেবগনসহ আরও কয়েকজনের প্রেমের খবর চাউর হয়েছে। একাধিক প্রেমের কথা অকপটে স্বীকারও করেছেন এ তারকা।

ঘটনার দুই বছর আগের। ২০১৭ সালে সংবাদমাধ্যমে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকার আদিত্য ও তাঁর স্ত্রী সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করেন কঙ্গনা। তাঁর বোন রঙ্গোলিও এই দম্পতির নামে আপত্তিকর টুইট করেন বলে অভিযোগ। এরপরই তাঁদের নামে মানহানির মামলা করেন আদিত্য ও তাঁর স্ত্রী জারিনা ওয়াহাব। তার ভিত্তিতে মোট চারটি আলাদা মামলায় সমন জারি করেছেন আন্ধেরির আদালত।

জানা গেছে, কোনো একসময় আদিত্য পাঞ্চোলির সঙ্গে কঙ্গনা রনৌতের দারুণ সখ্য ছিল। সে সময় বলিউডে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার জন্য সংগ্রাম করছিলেন কঙ্গনা। সে সময় বয়সে ২০ বছরের বড় বিবাহিত ও দুই সন্তানের জনক আদিত্য পাঞ্চোলির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান কঙ্গনা। পরে অবশ্য তিনি আদিত্যর সঙ্গে প্রেম এবং ভেঙে যাওয়া প্রেমের কথা জানান। আদিত্যর সঙ্গে কঙ্গনার প্রেমের খবরে শোরগোল উঠেছিল বলিউডে। কঙ্গনাকে বাড়ি কিনে দেওয়ার জন্য বিশাল অঙ্কের টাকা দিয়েছিলেন আদিত্য। এ ছাড়া কঙ্গনার বোন অ্যাসিড হামলার শিকার হওয়ার পর তাঁর চিকিৎসার খরচও দিয়েছিলেন আদিত্য। স্ত্রী-সন্তান ছেড়ে কঙ্গনার সঙ্গে থিতু হওয়ারও ঘোষণা দিয়েছিলেন আদিত্য। পরে অবশ্য তাঁদের সম্পর্ক টেকেনি। কঙ্গনার সঙ্গে প্রতারণার পাশাপাশি তাঁর গায়ে হাত তোলার অভিযোগ উঠেছিল আদিত্যর বিরুদ্ধে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: