,


বরিশাল (Barishal)

আগৈলঝাড়ায় শ্রেণীকক্ষে ছাত্রীর সাথে কথা বলতে না দেওয়ায় শিক্ষকের উপর হামলা : হাসপাতালে ভর্তি : মামলার প্রস্তুতি

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) থেকেঃ বরিশালের আগৈলঝাড়ায় শ্রেণীকক্ষে ছাত্রীর সাথে কথা বলতে না দেওয়ায় শিক্ষকের উপর হামলা। আহত শিক্ষককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আহত শিক্ষক ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, আগৈলঝাড়া উপজেলার রত্নপুর ইউনিয়নের ঐচারমাঠ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গত শনিবার সকালে ক্লাস চলাকালীন সময়ে ৫ম শ্রেণী কক্ষে ঢুকে তমা বাড়ৈ নামে এক ছাত্রীকে খুঁজতে থাকে বখাটেরা।

এ সময় ক্লাস শিক্ষক তাপস মাখন দেউরী তাদের কাছে তমাকে খোঁজার কারণ জানতে চায়। উপজেলার বারপাইকা গ্রামের মিলন বাড়ৈর মেয়ে তমা দোয়েল গার্লস হোস্টেলের ৫ম শ্রেণীর আবাসিক ছাত্রী।

ঐচারমাঠ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক তাপস মাখন দেউরীকে বখাটেরা স্কুল থেকে চলে যাবার সময় হুমকি দিয়ে যায়। এঘটনায় শনিবার স্কুল ছুটির পর বাড়ি ফেরার পথে শিক্ষক তাপস মাখন দেউরীর উপরে ঐচারমাঠ এলাকার জুড়ান বেপারীর ছেলে আকাশ, সুনীল হালদারে ছেলে সৈকত, উপেন বাড়ৈর ছেলে হৃদয়, মনোরঞ্জন বিশ্বাসের ছেলে নিউটনসহ ৫-৬ জনের একটি দল পথরোধ করে হামলা চালয়।

এসময় তার ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে গুরুতর অবস্থায় শিক্ষককে আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এঘটনায় আহত শিক্ষকের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

সরেজমিনে প্রত্যক্ষদর্শী সুনীল হালদারের ছেলে সাগর হালদার জানায়, ঐচারমাঠ দোয়েল গালর্স হোস্টেলের ছাত্রী তমা ও অংকিতা যৌণ নির্যাতানের শিকার হওয়ার ঘটনা ওই স্কুল ছাত্রী তমার কাছে জানতে চাওয়ায় শিক্ষক তাপস মাখন দেউরী অভিযুক্তদের বাঁধা দেয়। এ কারণে তার উপর হামলা হয়েছে।

এব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. সিরাজুল হক তালুকদার জানান, আহত শিক্ষক তাপস মাখন দেউরীকে হাসপাতালে দেখতে গিয়ে চিকিৎসার খোঁজখবর নিয়েছি। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। আহত শিক্ষককে আইনী সহায়তা করা হবে।

আগৈলঝাড়া থানা ওসি (তদন্ত) আকরাম হোসেন বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শ করেছে। পরিবারের কাছে লিখিত অভিযোগ চেয়েছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: