,


আগৈলঝাড়ায় আমন ক্ষেতে ইঁদুরের আক্রমণে দিশেহারা চাষী

আগৈলঝাড়ায় আমন ক্ষেতে ইঁদুরের আক্রমণে দিশেহারা চাষী

অপূর্ব লাল সরকার, আগৈলঝাড়া (বরিশাল) থেকে: বরিশাল জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার আমন ধান ক্ষেতে ইঁদুরের আক্রমণে দিশেহারা হয়ে পরেছে চাষীরা।

গত বছর উপজেলার নওপাড়া গ্রামে ৪১ একর জমির ১ হাজার মন পাকা ধানকেটে নিয়েছিল ইঁদুরে। কৃষকেরা তাদের সহায় সম্বল দিয়ে বোরো আবাদ করে ইঁদুরের কারনে একটি ধানও তুলতে পারেন।

চলতি বছর কৃষি বিভাগের পরামর্শ ও সহায়তায় আগৈলঝাড়া উপজেলার এক চাষী একদিনে ১২০টি বড় আকারের ইঁদুর নিধন করে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। চলতি আমন মৌসুমে উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭৭০ হেক্টর।

এরমধ্যে ১৭৫ হেক্টর উফশী আমন ও ৫২৫ হেক্টর স্থানীয় উফশী জাতের আমন ধান। এপর্যন্ত উপজেলার কৃষকরা ১৭৫ হেক্টর জমিতে উফশী আমন এবং ৫২৫ হেক্টর জমিতে স্থানীয় উফশী জাতের আমন আবাদ করেছেন। আবাদের অপেক্ষায় রয়েছে আরও কয়েক হেক্টর জমি।

তিনি আরও বলেন, গত কয়েকদিন থেকে রোপা আমন ক্ষেতে ইঁদুরের আক্রমণে চাষীরা দিশেহারা হয়ে পরেছেন। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, এবছর জমিতে পানি কম হওয়ায় ইঁদুরের দল ঝাঁকে ঝাঁকে ফসলী মাঠের উচু জায়গায় বাসা বেঁধেছে।

ইঁদুরের দল আমন ক্ষেতের ধান গাছ কেটে দিচ্ছে। বিশেষ করে রোপা আমনের ক্ষেতে ইঁদুরের আক্রমন বেশি হচ্ছে।

উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের রাংতা গ্রামের চাষী বাচ্চু হাওলাদার বলেন, কৃষি অফিসারদের দেয়া ইঁদুর মারার বিশেষ কৌশল ও পরামর্শে তিনি একদিনে শুক্রবার রাতে বিশাল আকৃতির ১২০টি ইঁদুর নিধন করতে সক্ষম হয়েছেন এবং মৃত ইদুরগুলো ভ্যানগাড়ি বেঝাই করে উপজেলা কৃষি দপ্তরে দেখানোর জন্য নিয়ে আসে। ইঁদুরের কবল থেকে ফসলকে সুরক্ষা করতে তিনি কৃষি অফিস থেকে চাষীদের পরামর্শ নেয়ার আহ্বান করেন।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র মন্ডল বলেন, রাংতা গ্রামের কৃষক বাচ্চু হাওলাদার একদিনে ১২০ টি ইদুর নিধন করায় তাকে আগৈলঝাড়া কৃষি অফিস থেকে পুরস্কৃত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: